লস এঞ্জেলেসে বাফলার অভিষেক অনুষ্ঠান ও ইফতার মাহফিল


লস এঞ্জেলেসে বাফলার অভিষেক অনুষ্ঠান ও ইফতার মাহফিল

বাফলার অভিষেক অনুষ্ঠানের ছবি 2013:
icon

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে গত ২৮ জুলাই লস এঞ্জেলসের দ্য বেভারলি গারল্যান্ড হলিডে ইন হোটেলের বলরুমে কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে বাংলাদেশ ইউনিটি ফেডারেশন অব লস আঞ্জেলেসের (বাফলা) ২০১৩-১৪ সনের নতুন পরিচালনা কমিটির এক অনাড়ম্বর অভিষেক অনুষ্ঠিত হয়।
 বাংলাদেশ ইউনিটি ফেডারেশন অব লস আঞ্জেলেস বাফলা  BUFLA 2013-14 Cabinet  (R-L) President Shiper Chowdhury, Faruque Howlader - Public Relations Secretary, Mohammad Amzad Hossain - Organizing Secretary, Layek Ahmed - Finance secretary, Abul Hasnath Rayhan - Vice President, Anjuman Ara Sheulee - General Secretary

বাংলাদেশ ইউনিটি ফেডারেশন অব লস আঞ্জেলেস বাফলা
BUFLA 2013-14 Cabinet
(R-L) President Shiper Chowdhury, Faruque Howlader – Public Relations Secretary, Mohammad Amzad Hossain – Organizing Secretary, Layek Ahmed – Finance secretary, Abul Hasnath Rayhan – Vice President, Anjuman Ara Sheulee – General Secretary


স্বাগত বক্তব্যে ২০১২-১৩ সনের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ড্যানি তৈয়েব বলেন, গত সাত বছরে আগে লস এঞ্জেলেসের প্রায় সকল সংগঠন নিয়ে গঠিত এই ফেডারেশন বর্তমানে প্রবাসে সামাজিক সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সবচেয়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।

তিনি তার টার্মে থাকাকালীন ২০১৩ সালের সফল বাফলা প্যারেডসহ প্রথম ঈদ রিইউনিয়ন ও মেলা, একুশে ফেব্রুয়ারী উদযাপন, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন অব নর্থ আমেরিকা ও এল এ সিটির সহযোগীতায় ফ্রি হেলথ ক্লিনিক ও সেমিনার, জব ফেয়ার, দেশে-বিদেশে দুর্গতদের সাহায্যার্থে ফান্ডরেইজিং সহ মূলধারায় বাংলাদেশীদের সম্মানজনক অবস্থায় প্রতিষ্ঠিত করতে লস এঞ্জেলেসের বুকে লিটল বাংলাদেশ সৃষ্টি ও সাম্প্রতিক মেয়র নির্বাচনে বর্তমান মেয়রের নির্বাচনী প্রচারণায় সক্রিয় অংশগ্রহনের বর্ননা দেন।

This slideshow requires JavaScript.


অনুষ্ঠান শুরু হয় মোঃ আমজাদ হোসেনের পরিচালনায় হামদ, নাথ ও সুরা আবৃত্তি প্রতিযোগীতা দিয়ে। বাফলার প্রথম মহিলা প্রেসিডেন্ট ড্যানি তৈয়েব পুরষ্কার বিতরণ করেন ও নতুন কমিটিকে স্বাগত জানান। নতুন প্রজন্মের চোখে গত বছরে বাফলার উল্লেখ্যযোগ্য কার্যক্রম নিয়ে আদনান তৈয়েবের স্লাইডশো পরিবেশিত হয়। বাফলার এক্সিকিউটিভ মেম্বারসহ কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বাফলার কার্যক্রম নিয়ে বক্তৃতা দেন। বাফলার বোর্ড অব ট্রাষ্টির চেয়ারম্যান নাসিমুল গনি ও সদস্য টিয়া হাবিব নতুন কমিটির নবনির্বাচিত প্রতিনিধিদের শপথবাক্য পাঠ করান।

নবনির্বাচিত ক্যাবিনেট সদস্যরা হলেন, সভাপতি শিপার চৌধুরী, সহসভাপতি আবুল হাসনাত রাইহান, সাধারণ সম্পাদক আঞ্জুমান আরা শিউলী, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আমজাদ হোসেন, পাবলিক রিলেশন সম্পাদক ফারুক হাওলাদার, কোষাধ্যক্ষ লায়েক আহমেদ এবং সাংস্কৃতিক সম্পাদক দিলুর চৌধুরী।

নুতন ক্যাবিনেটকে শুভেচ্ছা, শুভকামনা ও সহযোগিতা করার অঙ্গীকার করে বক্তব্য দেন ডাক্তার এম এ হাশেম, খন্দকার আলম, আবুল কাশেম তোহা, নজরুল ইসলাম কাঞ্চন, নজরুল আলম, সালেক সোবহান, শামসুদ্দিন মানিক, সাইফ কুতুবী, জাকির খান, এনামুল হক এমরান, প্রফেসর আলী আকবর, বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মালেক, এম কে জামান, মুমিনুল হক বাচ্চু, ওমর হুদা, মুজিব সিদ্দীকি, সালেহ কিবরিয়া, জসিম আশরাফি আহমেদ, বাফলার প্রতিষ্ঠাতা ডঃ মাহবুব খান প্রমুখ।
ইফতারী, নামাজ ও ডিনারের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ হয়।

প্রবাসে সাংবাদিকতা, মিডিয়া ও শিল্প-সাহিত্য-সংষ্কৃতিতে উল্লেখযোগ্য কর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ একুশ নিউজ মিডিয়ার সম্পাদক ও প্রকাশক জাহান হাসানকে ক্রেষ্ট দিয়ে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

#jahanhassan #জাহানহাসান #বাফলা #BUFLA #littlebangladesh #লিটলবাংলাদেশ

BUFLA Awarded to Jahan Hassan in recognition for outstanding contributions to Bengali Literature, Language, Journalism and Media.
This Award honors public service journalism that explores and exposes an issue of importance to immigrant in the United States. #jahanhassan

বাফলার অভিষেক অনুষ্ঠানের পরে সামাজিকতার ছবি 2013
icon

লস এঞ্জেলেসে ষ্টেট আওয়ামী লীগের ইফতার ও সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন উদযাপন


লস এঞ্জেলেসে ষ্টেট আওয়ামী লীগের ইফতার ও সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন উদযাপন

একুশ নিউজ মিডিয়া,লস এঞ্জেলেস, ২৭ জুলাই :
লস এঞ্জেলেসে ইফতার সন্ধ্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একমাত্র ছেলে তথ্য-প্রযুক্তিবিদ সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৪২তম শুভ জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।
লস এঞ্জেলেসে সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন উদযাপন
ক্যালিফোর্ণিয়া ষ্টেট আওয়ামী লীগের উদ্যোগে গত শনিবার লস এঞ্জেলেসের অলিম্পিক পুলিশ ষ্টেশন কম্যুনিটি সেন্টারে ইফতার মাহফিলে দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন মিয়া আবদুর রব। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একমাত্র ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করা হয়। অনুষ্ঠানে দোয়ায় বঙ্গবন্ধু পরিবারের অন্যান্য সদস্যের সুস্থতা ও সাফল্য কামনা করা হয়।

ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে নতুন প্রজন্মের নেতৃত্বের দুয়ার প্রসারিত করার লক্ষ্যে আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের কোন বিকল্প নাই, আর সেই সন্ধিক্ষণে সজীব ওয়াজেদ জয়ের অগ্রযাত্রাকে সুযোগ দিতে প্রবাসীসহ দেশবাসীকে আহ্বান জানান ক্যালিফোর্ণিয়া ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ডাঃ রবি আলম।

ষ্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুর রহমান আগত অতিথিদের ধন্যবাদ জানান এবং বলেন, নিজেদের মাঝে দ্বিধা-দ্বন্ধ ভুলে আগামী নির্বাচনে বিপুলভাবে জয়ী হয়ে অসমাপ্ত কাজ শেষ করার জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ শুরু করার আহ্বান জানান।

দলের দুঃসময়ে যারা দলকে এগিয়ে নিয়ে গেছে তাদেরকে সংগঠিত করে প্রবাসে-দেশে শক্তিশালী নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির উপর গুরুত্বারোপ করেন ক্যালিফোর্ণিয়া ষ্টেট আওয়ামী লীগের প্রাক্তন সভাপতি সোহেল রহমান বাদল।

জন্মদিন উদযাপনের সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাহাতাব আহমেদ টিপু, মিজানুর রহমান শাহীন, তোফাজ্জল কাজল, মোঃ হোসেন, শওকত চৌধুরী, মোঃ আলী, আকতার এইচ মিয়া, মোবারক হোসেন বাবলু, ফরিদ উ আহমেদ, শফিউল আলম বাবু, সৈয়দ এম হোসেন, জসীম আশ্রাফী, জিয়াউল ইসলাম, মোঃ হিলটন, তপন দেবনাথ, এম কে জামান, নাসির আহমেদ অপু, নিপা মোনালিসা, আতিক রহমান, মিঠুন চৌধুরী ও মমিনুল হক বাচ্চু প্রমুখ।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় অবরুদ্ধ ঢাকায় জন্ম হয় জয়ের, বিজয়ের পর তার নাম রাখেন নানা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা ও যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত তথ্য-প্রযুক্তিবিদ প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিনের কেক কাটেন ক্যালিফোর্ণিয়া ষ্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুর রহমান সহ আগত অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।
২০১৩ ছবি লিঙ্কঃ http://goo.gl/mL3rVs

This slideshow requires JavaScript.


২০১২ জন্মদিনের ছবি ও নিউজঃ http://goo.gl/yNP3TI

Please Donate Your Zakat to Rights and Sight for Children (RSC) to Help Underprivileged Children


Please Donate Your Zakat to Rights and Sight for Children (RSC) to Help Underprivileged ChildrenDCI Kids in MohammedPur Dhaka

Dear Friends:

Assalamu Alaikum. The precious days of Ramadan are upon us, and with them the blessings of giving Zakat and Sadaqa. We are now in the holy month of Ramadan, the month of self-sacrifice and fasting.  As you consider where to donate your Zakat and Fitra this year, we humbly ask that you consider contributing your charity to RSC Zakat Fund. Your generous donation will ensure that we can continue our important work on behalf of underprivileged and orphaned children in Bangladesh. Please see the attached Zakat Flyer for more details.

Rights and Sight for Children (RSC) is a non-profit Bangladeshi child rights organization established in 1996. RSC’s mission is to protect the rights of children, stop child labor, and help families lift themselves out of the poverty cycle through education, healthcare, family support, and income generating opportunities. To learn more about RSC, please visit www.rscbd.org.

We proudly report that with your assistance RSC has been able to help over 5,000 village children. We have also been able to provide 10,000 Dhaka City slum residents with preventive healthcare support. This is just a small sample of what we have achieved so far through the generosity and commitment of people like you. To see more achievements, please visit our website at www.rscbd.org, or visit our projects in Bangladesh to see for yourself!

Please continue your support and consider donating your Zakat to relieve suffering in the following ways:

SPONSOR A CHILD (Sun-Child Sponsorship Program): For only $15/month ($180/yr) you can sponsor a child in rural school. Keep a child in school, prevent child labor, provide health care, vision care, improve schools, create income opportunities for the child’s family and support community development.

SPONSOR AN ORPHAN
(Orphan Support Program): For only $50/month ($600/yr) you can provide housing, food, basic necessities, healthcare, vision care, education support, and skill training to Bangladeshi orphans at our Sun Child Home. Help provide the orphans with tutors, counselors, life skills training, and job training to help them transition from the orphanage to the outside world once they have reached their teens.

SPONSOR AN EYE SURGERY
: $50 can provide an eye surgery for an individual to prevent blindness.

OR:
Make a donation in any amount, for your specific interest or to our general emergency fund.
This Ramadan your Zakat can make a difference to a child, a family, or a whole community. You can also give Sadaqa for programs such as Eid Gifts for Children and Fitra.

May Allah bless you all for your contribution to this noble cause.

With kindest regards,

Salma Qadir
Chief Coordinator
Rights and Sight for Children (RSC)
Mob# 01727264688, Tel#02-9135122
E-mail: salmadcirsc@gmail.com

How to send your Zakat and donation to RSC:

RSC ZAKAT Fund
House # 167, Rd # 3, Mohammadia Housing Ltd.,
Mohammadpur, Dhaka, Bangladesh

Please send Checks or Money Orders payable to Rights & Sight for Children (RSC), Current Account No-001055919, Janata Bank Limited, Mohammadpur Corporate Branch, Mohhampur, Dhaka-1207.
Swift Code: JANBBDDHTKD

You may also donate through cash through visiting our office at House # 167, Rd # 3, Mohammadia Housing Ltd., Mohammadpur, Dhaka, Bangladesh.
Tel# 88-01727264688, 8802-9135122

Salma Qadir, B.A. (Hons),  M.A.
Coordinator, Distressed Children & Infants International (DCI)-Bangladesh
House#167, Road#3, Mohammadi Housing Ltd., Mohammadpur, Dhaka-1207, Bangladesh
Tel# 88-01727264688, 88-01552460242, 8802-9135122
Email: salmadcirsc@gmail.com, dci@distressedchildren.org, dci@cox.net

————————————————

– Jahan Hassan
Ekush News Media,
Little Bangladesh, Los Angeles, USA
( জাহান হাসান, একুশ নিউজ মিডিয়া, লস এঞ্জেলেস )
+1 818 266 7539

ভিডিও ।  Video : www.EkushTube.com
ফেস বুক । FaceBook : JahanHassan
Jahan@JahanHassan.com

দরবেশ থাকেন ভাড়া বাড়িতে?


Some content on this page was disabled on October 27, 2016 as a result of a DMCA takedown notice from Deshe Bideshe. You can learn more about the DMCA here:

https://en.support.wordpress.com/copyright-and-the-dmca/

পার্থকে নিয়ে বিপাকে শেখ হেলাল পরিবার


পার্থকে নিয়ে বিপাকে শেখ হেলাল পরিবার

June 19, 2013
Andalib Parthoঢাকা:মেয়ের জামাইকে নিয়ে বিপাকেই পড়েছেন প্রধানমন্ত্রীর চাচাতো ভাই শেখ হেলাল উদ্দিন। কোনো কিছুতেই বাগে আনতে পারছেন না তাকে। বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্য হয়ে ও হরহামেশাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সরকারের মুখোরোচক সমালোচনা করে যাচ্ছেন তিনি। এই তিনির নাম আন্দালিব রহমান পার্থ। তিনি আঠারো দলীয় জোটের শরিক বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি-বিজেপির সভাপতি।

ভোলা সদরের সাংসদ আন্দালিব রহমান পার্থকে নিয়ে আওয়ামী লীগে ব্যাপক সমালোচনা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীকে­ নিয়ে তাঁর বক্তব্য ভাল ভাবে নিচ্ছেন না সরকারের নীতি নির্ধারকরা। শেখ হেলাল কেন পার্থ কে বোঝাতে পারেন না তা নিয়ে ও নানা কথা আছে আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে। শুধু তিনিই নন, আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম পার্থর মামা। ভাগ্নের কারণে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় তাকেও। খালাতো ভাই জাতীয় সংসদের হুইপ নূর-ই-আলম লিটন চৌধুরী ও এর বাইরে নয়। তিনি ও সমালোচকের দায় এড়াতে পারেন না সহজে। খালু আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী। মামাতো ভাই ফজলে নূর তাপসও এ নিয়ে আন্দালিব রহমান পার্থের সঙ্গে কথা বলেছেন।

পার্থর ঘনিষ্ঠ সূত্র ঢাকাটাইমসকে জানায়, কদিন আগে বিজেপি নেতার বাসায় আওয়ামী লীগের তার ঘনিষ্ঠরা এ নিয়ে বৈঠক ও করেন। তারা পার্থকে হেফাজতে ইসলামের আন্দোলনের পক্ষে বক্তৃতা-বিবৃতি থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ করেন। এরপর থেকে অনেকটা গা ঢাকা দিয়ে আছেন বিজেপি চেয়ারম্যান।

এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য আন্দালিব রহমান পার্থর সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনকে হারিয়ে ভোলা সদরের এমপি হন পার্থ। বাবা নাজিউর রহমান মঞ্জুর হাত ধরেই রাজনীতিতে আসা পার্থের। সাবেক মন্ত্রী নাজিউরের জনপ্রিয়তা কাজে লাগিয়ে এলাকায় নিজের অবস্থান তৈরি করে ফেলেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাচাতো ভাই শেখ হেলালের মেয়ে শেখ সায়রা রহমানকে বিয়ে করেছেন তিনি। এই দম্পতির দুই কন্যা মাহাম সানজিদা রহমান এবং দিনাবিনতে আন্দালিব।

ঢাকায় সেন্টযোসেফ ও ল্যাবরেটরি স্কুলে পড়া লেখা করেছেন পার্থ। লন্ডনে রলিং কনসইন থেকে ১৯৯৭ সালে সম্পন্ন করেন বার-অ্যাট-ল। ইংল্যান্ডের উল্ভার হ্যাম্পটন ইউনিভার্সিটির ছাত্র ছিলেন পার্থ। টিউশন নিয়েছেন হল্বর্ন কলেজ থেকে। তিনি লিংকন সইনের মেম্বার। দেশে ফিরে চার বছর কাজ করেন প্রখ্যাত আইনজীবী রফিক-উল হকের সঙ্গে।

পার্থ মনে করেন, ছাত্রলীগ যুবলীগ দিয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা হবে না। সোনার বাংলা গড়তে হলে যে প্রবাসী শ্রমিকরা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে এদেশে টাকা পাঠায় তাদের মূল্যায়ণ করতে হবে। তাদের ভালোবাসতে হবে। যে পোশাক শ্রমিকরা ‘মেড ইন বাংলাদেশ’কে বিশ্বের কাছে পরিচিত করেছে তাদের সম্মান করতে হবে।
সোমবার জাতীয় সংসদে বাজেটের উপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি) আন্দালিব রহমান পার্থ এ কথা বলেন।

পদ্মাসেতু, হলমার্ক, হেফাজতে ইসলাম, জঙ্গী, শাহবাগ, ভিওআইপিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারের বিতর্কিত ভূমিকার সমালোচনা করে বক্তৃতা করেন তিনি। বিতর্কিত ভূমিকার জন্য দপ্তরবিহীন মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেন গুপ্তের পদত্যাগও দাবি করেন পার্থ।

ওয়ান ইলেভেনের সময়ে সরকারের নির্যাতন, অনিয়মের প্রসঙ্গ এনে তিনি বলেন, এজন্য দায়ী কোন সেনা কর্মকর্তার বিচার হয়নি।
পার্থের বক্তৃতার সময় সরকার দলীয় সদস্যরা হৈ চৈ করে প্রতিবাদ জানান। বক্তৃতা শেষে সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত ব্যক্তিগত আক্রমণের জবাব দিতে চাইলে স্পিকার তাকে থামিয়ে দিয়ে বলেন, আপনাকে পরে সময় দেওয়া হবে।

http://newstimes24.net/?p=10849

তথ্য আছে, আ.লীগ আবার আসবে: জয়


তথ্য আছে, আ.লীগ আবার আসবে: জয়.

আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জয়ের ব্যাপারে ‘আত্মবিশ্বাসী’ প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজিব ওয়াজেদ জয়।

মঙ্গলবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে যুবলীগ আয়োজিত ইফতার পূর্ব আলোচনা সভায় তিনি বলেন, “আমার কাছে তথ্য আছে আওয়ামী লীগ আগামীবার আবার ক্ষমতায় আসবে। বিএনপির মিথ্যা প্রচার মোকাবেলা করতেই হবে।”

আগামী ছয় মাস তরুণ ভোটারদের কাছে বিএনপি-জামায়াতের দুঃশাসন, দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরারও আহ্বান জানান জয়।

গত ১৬ জুলাই স্ত্রী ক্রিস্টিন ওভারমায়ার ও মেয়ে সোফিকে নিয়ে সজীব ওয়াজেদ দেশে আসেন। দেশের ফেরার পর সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির দেয়া ইফতার আয়োজনে অংশ নেন।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে আগামী ১০ বছরে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে দাবি করে তিনি বলেন, “বিএনপি ক্ষমতায় আসলে দেশ পেছন দিকে হাঁটবে। বাংলার মানুষ কখনোই বিএনপি-জামায়াতের সেসব দিনের কথা ভুলবে না।

২১ অগাস্টে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার কথা উল্লেখ করে জয় বলেন, “একুশে আগস্টের কথা আমরা ভুলিনি। আমার মা কে লক্ষ্য করে বোমা হামলা করা হয়েছিল। আওয়ামী লীগের ২৩ জন নেতাকর্মীকে হত্যা করা হয়েছিল, আহত হয়েছিলেন ৪০০ জন। আর এই হামলার মূল পরিকল্পনা করা হয়েছিল হাওয়া ভবনে। তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর ছেলে নিজে আমার মাকে হত্যার পরিকল্পনা করেছিলেন।”

“আমার মা সৌভাগ্যক্রমে বেঁচে গেলেও আইভী রহমান বাঁচতে পারেননি। তিনি আমাকে নিজের সন্তানের মতোই স্নেহ করতেন। আমরা কিছুই ভুলিনি, ভুলব না। ২১ শে আগস্টের হত্যাকাণ্ডের বিচার হবেই।”

বিএনপি-জামায়াত জোটের সঙ্গে বর্তমান সরকারের আমলের তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, “কোথায় সরকার ব্যর্থ হয়েছে? বিগত বিএনপির সাথে বর্তমান সরকারের তুলনা করে দেখুন। টিআইবি এতো অভিযোগ করে কিন্তু বিএনপির সময়ে টিআইবির জরিপে দুর্নীতিতে শীর্ষে ছিল বাংলাদেশ, এখন বাংলাদেশের অবস্থা ৪০ এর উপরে।”

বর্তমান সরকারের আমলে ব্যবসায়ীদের চাঁদা দিতে হয় না দাবি করে জয় বলেন, “হলমার্ক-ডেসটিনি নিয়ে এত কথা হয়, কিন্তু হাওয়া ভবনের কথা কি জাতি ভুলে গেছে? খাম্বার কথা ভুলে গেছে? বিএনপি সরকার ৫ বছর শুধু খাম্বা কিনেছে, বিদ্যুৎ দিতে পারেনি। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণেও বিএনপি-জামায়াত সরকার ছিল সম্পূর্ণ ব্যর্থ।”

দেড় কোটি মানুষ গত সাড়ে ৪ বছরে দারিদ্র্য থেকে মুক্তি পেয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্যবিষয়ক উপদেষ্টা সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মীজানুর রহমান, যুবলীগ নেতা হারুনুর রশীদ, ফজলুল হক প্রমুখ।

বিএনপি – ক্যালিফোর্ণিয়া শাখা, যুক্তরাষ্ট্রের ইফতার মাহফিল


বিএনপি – ক্যালিফোর্ণিয়া শাখা, যুক্তরাষ্ট্রের ইফতার মাহফিল
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বি,এন,পি, ক্যালিফোর্নিয়া শাখা, যুক্তরাষ্ট্র

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বি,এন,পি, ক্যালিফোর্নিয়া শাখা, যুক্তরাষ্ট্র

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল – ক্যালিফোর্ণিয়া শাখা, যুক্তরাষ্ট্রের উদ্যোগে ২১ জুলাই এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

লিটল বাংলাদেশ-এর লস এঞ্জেলেসের শ্যাটো রিক্রিয়েশনাল সেন্টারে ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপির সভাপতি আব্দুল বাসিতের ও সাধারন সম্পাদক নিয়াজ মোহাইমেনের পরিচালনায় ইফতার মাহফিলে কোরআন তেলওয়াত করেন মোঃ কালাম। স্থানীয় কমিউনিটির বিশিষ্টজনদের সাথে বিএনপির অসংখ্য নেতা-কর্মীরা তাদের পরিবার-পরিজনসহ এই ইফতার মাহফিল যোগ দেন।

বিএনপির সভাপতি আব্দুল বাসিত একুশ নিউজ মিডিয়াকে বলেন, গাজীপুরসহ পাঁচ সিটি কর্পোরেশনে বিএনপির প্রার্থীর বিজয়ের মাধ্যমে জনগণ বার্তা দিয়েছে যে তারা পরিবর্তন চায়। শুধু পাঁচ সিটিতে নয় সারা দেশেই এখন একই অবস্থা। নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নিজ নিজ স্থানে উন্নয়নের পাশাপাশি সৎ ও নিষ্ঠার সাথে জনগণের দেয়া অর্পিত দ্বায়িত্ব সঠিকভাবে পালনের মাধ্যমে শহীদ জিয়ার নীতি ও আদর্শকে সমাজে স্থায়ীভাবে বাস্তবায়ন করা যাবে। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে চলমান আন্দোলনের সময় এই বিশাল গণরায়কে দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে কাজে লাগানোর জন্য নতুন মেয়র ও কাউন্সিলদের উপর যে গুরুদ্বায়িত্ব দেয়া হয়েছে তা সর্তকতা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করার আহ্বান জানান আব্দুল বাসিত।
ছবি লিংক ঃ http://goo.gl/lmlYDQ