রাজধানীতে দ্রুত ট্যাক্সিক্যাব নামানোর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে…

৬ হাজার ৭৪০ ট্যাক্সিক্যাবের লাইসেন্স প্রদানে দরপত্র


ইসমাইল আলী
রাজধানী ও আশপাশ এলাকায় চলাচলের জন্য নতুন ৬ হাজার ৭৪০টি ট্যাক্সিক্যাবের লাইসেন্স দেবে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়। সংশোধিত ‘ট্যাক্সিক্যাব সার্ভিস গাইডলাইন-২০১০’-এর আলোকে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। আগ্রহী প্রতিষ্ঠানকে চলতি মাসের মধ্যে আবেদন করতে হবে। গাইডলাইন অনুযায়ী লাইসেন্স পাওয়া প্রতিষ্ঠানকে ন্যূনতম ২৫০টি ট্যাক্সিক্যাব আমদানি ও পরিচালনা করতে হবে।
এ প্রসঙ্গে যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বণিক বার্তাকে বলেন, রাজধানীতে বর্তমানে ট্যাক্সিক্যাব নেই বললেই চলে। যেগুলো আছে, সেগুলোর অবস্থা খুবই খারাপ। এ কারণে রাজধানীতে দ্রুত ট্যাক্সিক্যাব নামানোর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। এজন্য ট্যাক্সিক্যাব সার্ভিস গাইডলাইন-২০১০-এর আলোকে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। নীতিমালায় কিছুটা পরিবর্তন এনে সর্বনিম্ন ২৫০টি ট্যাক্সিক্যাব আমদানির সুযোগ দেয়া হচ্ছে।
জানা গেছে, লাইসেন্স পাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর আমদানি করা ট্যাক্সিক্যাবের ইঞ্জিনক্ষমতা ১৫০০ বা তার বেশি সিসির হতে হবে। তবে ১ শতাংশ কম হলে তা ১৫০০ সিসি হিসেবেই বিবেচ্য হবে। তৃতীয় কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের তত্ত্বাবধানে (ক্যাবএক্স) এগুলো পরিচালনা করা যাবে না। আগ্রহী প্রতিষ্ঠানকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) বরাবর আবেদন করতে হবে। অনুমোদন পাওয়ার পর জামানত বাবদ ১০ লাখ টাকার পে-অর্ডার (ফেরেযাগ্য) জমা রাখতে হবে।
পরিবেশবান্ধব হিসেবে সিএনজি বা পেট্রলচালিত ট্যাক্সিক্যাব আমদানি করতে হবে। মোটর কার, স্টেশন ওয়াগন ও মাইক্রোবাস ধরনের মোটরযান ট্যাক্সিক্যাব হিসেবে চালানোর অনুমতি দেয়া হবে। এগুলো এসি বা নন-এসি হতে পারে। লাইসেন্স পাওয়া প্রতিষ্ঠান সম্পূর্ণ নতুন বা রিকন্ডিশনড গাড়ি ট্যাক্সিক্যাব হিসেবে আমদানি করতে পারবে। তবে তিন বছরের বেশি পুরনো গাড়ি আমদানি করা যাবে না। এক্ষেত্রে নন-এসি ট্যাক্সিক্যাব আকাশি নীল, এসি ক্যাব হলুদ ও দুই হাজার বা তদূর্ধ্ব ক্যাব সবুজ রঙ করতে হবে।
অনুমতি পাওয়ার চার মাসের মধ্যে ট্যাক্সিক্যাব পরিচালনা শুরু করতে হবে। এক্ষেত্রে ব্যর্থ হলে লাইসেন্স বাতিল ও জামানত বাজেয়াপ্ত করা হবে। আমদানি করা ট্যাক্সিক্যাব ঢাকা মহানগরী ছাড়াও নারায়ণগঞ্জ, সাভার, টঙ্গী, মুন্সীগঞ্জ, দোহার, মাওয়া, জয়দেবপুর চৌরাস্তা হয়ে গাজীপুর ও মানিকগঞ্জের আরিচা এলাকায় ভাড়ায় চালানো যাবে। অনুমোদন পাওয়া প্রতিটি কোম্পানি ২৪ ঘণ্টা সেবা দিতে বাধ্য থাকবে। প্রতিটি ট্যাক্সিক্যাবে অবশ্যই মিটার সংযোজন ও সে অনুযায়ী ভাড়া আদায় করতে হবে।
লাইসেন্সের জন্য আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানকে অবশ্যই কর শনাক্তকরণ নম্বরধারী (টিআইএন) প্রাইভেট বা পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি হতে হবে। প্রতিষ্ঠানটির পরিশোধিত মূলধন থাকতে হবে ন্যূনতম আড়াই কোটি টাকা। নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ট্যাক্সিক্যাব রাখার গ্যারেজ বা ডিপো ও মেরামতের ব্যবস্থা, নিজস্ব রেডিও লিংক, সেলফোন ও জিপিএস ব্যবস্থা-সংবলিত নিয়ন্ত্রণকক্ষ, ভেহিকল ট্র্যাকিং ব্যবস্থাও থাকতে হবে। কোনো ঋণখেলাপি প্রতিষ্ঠান ট্যাক্সিক্যাব আমদানির জন্য আবেদন করতে পারবে না।
এ প্রসেঙ্গ বিআরটিএর পরিচালক (প্রকৌশল) মো. সাইফুল হক বলেন, তিন বছর ধরে চেষ্টা করেও রাজধানীতে ট্যাক্সিক্যাব নামানো সম্ভব হয়নি। একবারে ন্যূনতম এক হাজার ট্যাক্সিক্যাব আমদানির জন্য এর আগে দুবার দরপত্র আহ্বান কর হয়। কিন্তু রাজধানীতে কোনো ক্যাবই নামানো যায়নি। এ কারণে এবার নীতিমালা আংশিক সংশোধন করে ন্যূনতম ২৫০টি ট্যাক্সিক্যাব নামানোর সুযোগ দেয়া হয়েছে।
বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সভাপতি ও নগরবিদ সারোয়ার জাহান বলেন, একটি দেশের রাজধানীর জন্য উপযোগী ও উন্নত যোগাযোগব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য অবশ্যই শক্তিশালী ট্যাক্সিক্যাবব্যবস্থা থাকতে হবে। এতে ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ অনেকাংশে কমে যাবে। কেউ সহজে ট্যাক্সিক্যাব সুবিধা পেলে ব্যক্তিগত গাড়ির দিকে ঝুঁকবে না। এক্ষেত্রে বিআরটিএর উদ্যোগটি অবশ্যই প্রশংসনীয়। এক হাজারের পরিবর্তে ২৫০ ট্যাক্সিক্যাব আমদানি ও পরিচালনার অনুমতি দেয়া হলে রাজধানীতে এ সার্ভিস দ্রুত চালু করা যাবে।
উল্লেখ্য, কঠিন শর্তের কারণে ২০১১ সালের অক্টোবরে অনুমতি নিয়েও ক্যাব নামাতে ব্যর্থ হয় সারিকা ট্রেডার্স ও কর্ণফুলী ওয়ার্কস লিমিটেড। পরে তাদের লাইসেন্স বাতিল করা হয়। গত বছর অক্টোবরে দরপত্রে অংশ নেয় নিটল মোটরস লিমিটেড, নোফেল মোটরস লিমিটেড ও বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্ট ভেহিকল কোম্পানি লিমিটেড। কিন্তু শর্ত পূরণ না হওয়ায় এ তিন কোম্পানি ট্যাক্সিক্যাব আমদানির লাইসেন্সই পায়নি।

সূত্রঃ http://bonikbarta.com/?view=details&pub_no=324&menu_id=11&news_id=43606&news_type_id=1

Advertisements

তথ্য কণিকা Jahan Hassan জাহান হাসান
Ekush, Publisher/Editor/ Hollywood media hyphenate/ একুশ নিউজ মিডিয়া, লিটল বাংলাদেশ, লস এঞ্জেলেস / 1 818 266 7539 / FB: JahanHassan

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: