৪০ বছরের মধ্যে সর্বাধিক ৬০.২% প্রবৃদ্ধি অর্জণ করে বাংলাদেশের ব্যাংকিং ইতিহাসে নতুন উদাহরণ

বেসরকারি ব্যাংকের অর্ধ-বার্ষিক মুনাফা

২০১১-০৮-০৭

নিউজ অর্থনীতি ডেস্ক : চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো ৫৬৭৭ কোটি টাকা গ্রস মুনাফা করে গত ৪০ বছরের মধ্যে সর্বাধিক ৬০.২% প্রবৃদ্ধি অর্জণ করে বাংলাদেশের ব্যাংকিং ইতিহাসে নতুন উদাহরণ সৃষ্টি করেছে। বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক মন্দা, দেশে অস্থিতিশীলতা সত্যেও মুনাফার এই প্রবৃদ্ধিতে ব্যাংকররাও হতচকিত। তবে মুনাফা বৃদ্ধির প্রধান কারণ দেশের পুঁজিবাজার।

গত এক বছরে ঢাকার পুঁজিবাজারে সূচক বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় দেড় হাজার পয়েন্ট এবং মার্কেট ক্যাপিটাল বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় দ্বিগুন। যে কারণে ব্যাংকিংখাত গত অর্ধ-বার্ষিক হিসাব সমাপনীতে মার্চেন্ট ব্যাংকিং ও পুঁজি বাজার অপারেশন থেকে অর্জিত মুনাফার প্রায় ৪০% আয় করতে সক্ষম হয়েছে। মুনাফা বছরের শেষ ৬ মাসে আরও বাড়বে বলে বাজার বিশেষজ্ঞদের ধারনা।

বেসরকারি ব্যাংকগুলির মধ্যে টানা ৮ম বারের মতো সর্বোস্ত ৫০৭ কোটি টাকা গ্রস মুনাফা অর্জন করেছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড। গত অর্ধ-বছরের মুনাফার চেয়ে ইসলামী ব্যাংক এবছর মুনাফা বেশি হয়েছে ১০৩ কোটি টাকা বা ২৫.৫%। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে এবি ব্যাংক। চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে এবি ব্যাংক ৪২০ কোটি টাকা গ্রস মুনাফা করে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১০৫% প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে। গত বছর ব্যাংকটির অর্ধ-বার্ষিক মুনাফার পরিমান ছিল ২০৫ কোটি টাকা। ন্যাশনাল ব্যাংক ৩৬৫ কোটি টাকা মুনাফা করে তৃতীয় স্থানে রয়েছে। ন্যাশনাল ব্যাংক গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১২২.৬% প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে। প্রাইম ব্যাংক মাত্র ৩৪% প্রবৃদ্ধি অর্জন করে মুনাফা করেছে ৩৩৫ কোটি টাকা। যা গত বছরের প্রথম ৬ মাস পরে ছিল ২৫০ কোটি টাকা।

২৯৫ কোটি টাকা মুনাফা অর্জন করে সাউথইস্ট ব্যাংক প্রবৃদ্ধি লাভ করেছে ৬৬.৭%। গত বছর প্রথম ৬ মাসে সাউথইস্ট ব্যাংকের মুনাফা ছিল ১৭৭ কোটি টাকা। পূবালী ব্যাাংক চলতি বছরের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ২৮৫ কোটি টাকা, যা গত বছর একই সময় ছিল ১৮০ কোটি টাকা। পূবালী ব্যাংক বছরের প্রথমার্ধে মুনাফায় প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে ৫৮.৩%। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক বছরের প্রথমার্ধে ৭১% প্রবৃদ্ধি অর্জন করে মুনাফা করেছে ২২৬ কোটি টাকা। গত বছরের একই সময় যার পরিমান ছিল ১৩২ কোটি টাকা। ডাচ-বাংলা ব্যাংক মুনাফা করেছে ২১৭ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯৩ কোটি টাকা বেশি। ডাচ-বাংলা ব্যাংক মুনাফায় প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে ১৩৩%। ব্যাংক এশিয়া ৯৯% প্রবৃদ্ধি অর্জন করে মুনাফা করেছে ২১৫ কোটি টাকা। গত বছরের প্রথমার্ধ শেষে ব্যাংক এশিয়ার মুনাফা ছিল ১০৮ কোটি টাকা।

ব্রাক ব্যাংক ২০১০ সালের জুন মাস পর্য- মুনাফা করেছে ২১৫ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪০ কোটি টাকা বেশি। এক্সিম ব্যাংক বছরের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ২১০ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১০৩ কোটি টাকা বেশি। এক্সিম ব্যাংক উল্লেখিত সময়ে মুনাফায় প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে ৯৬%। ইস্টার্ণ ব্যাংক ২০১০ সালের প্রথমার্ধে গ্রস মুনাফা করেছে ২০০ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময় ছিল ১৪৮ কোটি টাকা। এনসিসি ব্যাংক চলতি বছরের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ১৮৭ কোটি টাকা, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪৩ কোটি টাকা বেশি। ঢাকা ব্যাংক চলতি অর্ধ-বছর শেষে ৩৯% প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে গ্রস মুনাফা করেছে ১৮১ কোটি টাকা। গত বছরের প্রথমার্ধে এই মুনাফার পরিমান ছিল ১৩০ কোটি টাকা।

ওয়ান ব্যাংক মুনাফা করেছে ১৬৪ কোটি টাকা, যা গত বছরের প্রথমার্ধে ছিল ৬৮ কোটি টাকা। ওয়ান ব্যাংক প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে ১৪১%। উত্তরা ব্যাংক চলতি বছরের প্রথমার্ধে গ্রস মুনাফা করেছে ১৬০ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪০ কোটি টাকা বা ৩৩% বেশি। শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক মুনাফা করেছে ১৬০ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯৫% বা ৭৮ কোটি টাকা বেশি। দি সিটি ব্যাংক ১৬৩% প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে মুনাফা করেছে ১৪৫ কোটি টাকা। যার পরিমান গত বছরের একই সময় ছিল ৫৫ কোটি টাকা। আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক চলতি বছরের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ১৪০ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৭২% বা ৫৯ কোটি টাকা বেশি। ষ্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক বছরের প্রথম ৬ মাসে মুনাফা করেছে ১৩৯ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯৫.৮% বা ৬৮ কোটি টাকা বেশি।

আইএফআইসি ব্যাংক বছরের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ১৩৫ কোটি টাকা যা গত বছরের প্রথমার্ধের তুলনায় ৫০% বা ৪৫ কোটি টাকা বেশি। মার্কেন্টাইল ব্যাংক চলতি বছরের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ১৩০ কোটি টাকা। গত বছরের একই সময় এই মুনাফা ছিল ১০৫ কোটি টাকা। দি ট্রাষ্ট ব্যাংক চলতি বছরের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ১২১ কোটি টাকা যা গত বছরের প্রথমার্ধের তুলনায় ৫১% বা ৪১ কোটি টাকা বেশি। প্রিমিয়ার ব্যাংক গত ৬ মাসে ১৩০% প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে মুনাফা করেছে ১১৫ কোটি টাকা। গত বছরের প্রথমার্ধে প্রিমিয়ার ব্যাংকের মুনাফা ছিল ৫০ কোটি টাকা। সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক ২০১০ সালের প্রথম ৬ মাসে মুনাফা করেছে ১০৫ কোটি টাকা। যা গত বছরের প্রথম ৬ মাসে ছিল ৭৫ কোটি টাকা। সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে ৪০% বা ৩০ কোটি টাকা। মিউচুলায় ট্রাষ্ট ব্যাংক মুনাফা করেছে ১০৪ কোটি টাকা যা গত বছর ছিল ৭০ কোটি টাকা। যমুনা ব্যাংক বছরের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ৯৯ কোটি টাকা যা গত বছরের প্রথমার্ধ শেষে ছিল ১০০ কোটি টাকা। বেসিক ব্যাংক মুনাফা করেছে ৫২ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ে ছিল ৭৫ কোটি টাকা। ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ২০১০ সালের প্রথমার্ধে মুনাফা করেছে ৫০ কোটি টাকা যা গত বছরের একই সময়ে ছিল মাত্র ৫ কোটি টাকা। ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ব্যাংক মুনাফায় প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে ৯০০% বা ৪৫ কোটি টাকা।

এছাড়াও আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক ও বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক দেশে ব্যাংকিং ব্যবসা পরিচালনা করলেও চলতি বছরের প্রথমার্ধে কোন পরিচালনা মুনাফা করতে পারেনি।

বাংলাদেশে ব্যাংকিংখাত গত এক দশকে প্রভূত সাফল্য লাভ করেছে। আমানত, ঋণ ও মুনাফা অর্জনে ব্যাাংকিংখাতের সাফল্য বিশ্বে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এখন একটি প্রমানিত সত্য। তবে গত ৬ মাসের ব্যবসায়িক সাফল্য গোটা আর্থিকখাত তথা বিজ্ঞজনদের তাক লাগিয়ে দিয়েছে।

যদিও অর্জিত মুনাফার প্রায় ৪০% অর্জিত হয়েছে পুঁজিবাজার থেকে। তবে পূবালী, প্রাইম, ইউসিবি, ফার্ষ্ট সিকিউরিটি, এক্সিম, ঢাকা ব্যাংক মূলত: মুনাফা করেছে বিতরণকৃত ঋনের সুদ ও সার্ভিস চার্জ থেকেই। পুঁজি বাজার থেকে সবচেয়ে সাফল্য পেয়েছে এবি ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক, ইস্টার্ণ, এনসিসি ও শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক।

ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক দীর্ঘ ১০ বছর পর ৫টি এজিএম করে পুঁজি বাজারে ঝড় তুললেও ব্যাংকটি পুঁজি বাজার থেকে তেমন কোন সাফল্য পায়নি। তবে ইউসিবি আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আরও ৩টি এজিএম অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ইউসিবি মূলধন বাড়াতে ৩ বছরে ১৫০% স্টক ডিভিডেন্ড এবং আরও ১৫০% রাইট বোনাস দিতে পারে। এই ৩টি এজিএম অনুষ্ঠিত হলে ইউসিবি ‘এ’ ক্যাটাগরী শেয়ারে উন্নীত হবে।

ডাচ-বাংলা ব্যাংক অচিরেই তাদের অভিহিত মূল্য ১০ টাকায় নামিয়ে আনতে যাচ্ছে। তখন ব্যাংকটির শেয়ার মূল্য আর এক দফা বৃদ্ধি পাবে বলে বাজার বিশেষজ্ঞদের ধারণা।

উল্লেখিত অর্ধ-বার্ষিক মুনাফার মধ্যে প্রায় ২৫৫৪ কোটি টাকা কর্পোরেট ট্যাক্স দিতে হবে। তবে মন্দ ঋণের বিপরীতেও প্রায় ৫০০ কোটি টাকা সঞ্চিতি সংরক্ষণ করতে হবে। সেক্ষেত্রে নিট মুনাফা দাঁড়াবে আড়াই হাজার কোটি টাকা।

Advertisements

তথ্য কণিকা Jahan Hassan জাহান হাসান
Ekush, Publisher/Editor/ Hollywood media hyphenate/ একুশ নিউজ মিডিয়া, লিটল বাংলাদেশ, লস এঞ্জেলেস / 1 818 266 7539 / FB: JahanHassan

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: