ভিসা বাণিজ্যে মধ্যস্বত্বভোগীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার

ভিসা বাণিজ্যে মধ্যস্বত্বভোগীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার

বণিক বার্তা রিপোর্টঃ ভিসা বাণিজ্যে মধ্যস্বত্বভোগীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার সৌদি আরব গমনেচ্ছু বাংলাদেশী শ্রমিকদের কাছে চড়া দামে ভিসা বিক্রিসহ বিভিন্ন বিড়ম্বনার কারণ মধ্যস্বত্বভোগী আদম বেপারিরা। এই মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য কমাতে কঠোর হতে যাচ্ছে সরকার।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র বণিক বার্তাকে জানিয়েছে, গত সপ্তাহে সৌদি আরব সফরকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি সৌদি কর্তৃপক্ষকে এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে এসেছেন।
মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘সৌদি রাজধানী রিয়াদের গভর্নর প্রিন্স সাত্তামের সঙ্গে সাক্ষাত্কালে দীপু মনি ভিসা মধ্যস্বত্বভোগীদের বিরুেদ্ধে কঠোর হওয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।’

বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন প্রতিবেদনে জানা যায়, সৌদি আরবে গিয়ে বাংলাদেশী শ্রমিকরা অনেক সমস্যায় পড়েন। যার জন্য অনেকাংশে দায়ী মধ্যস্বত্বভোগী বিভিন্ন রিক্রুটিং এজেন্সি। অভিযোগ আছে, অনেক ক্ষেত্রে যে চাকরির আশ্বাস দিয়ে রিক্রুটিং এজেন্সিগুলো শ্রমিকদের বিদেশে পাঠায় তা ঠিক থাকে না। এমন অবস্থায় দেশে ফেরার কোনো রাস্তা না পেয়ে বিভিন্ন অবৈধ কাজে জড়িয়ে পড়তে বাধ্য হন বাংলাদেশী শ্রমিকরা। যার ফলে বাংলাদেশী শ্রমিকদের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সির (বায়রা) সভাপতি মো. আবুল বাশার বণিক বার্তাকে বলেন, রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোর মাধ্যমে অবৈধভাবে বিদেশে শ্রমিক পাঠানোর সুযোগ নেই। কারণ ব্যুরো অব ম্যান পাওয়ার, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড ট্রেনিং (বিএমইটি) এবং দূতাবাসের মাধ্যমে প্রতিটি ভিসার সত্যতা যাচাই করার পরই শ্রমিক বিদেশে পাঠায় রিক্রুটিং এজেন্সিগুলো।

তিনি দাবি করেন, মিথ্যা কাজের আশ্বাস দিয়ে বিদেশে পাঠানোর তথ্য সত্য নয়। কারণ বাংলাদেশ থেকে যেসব শ্রমিক সৌদি আরব যান তাদের অধিকাংশই ড্রাইভার, ক্লিনারের মতো ছোট ছোট কাজের চুক্তি নিয়ে যান। তবে কোনো শ্রমিক যদি ড্রাইভার হিসেবে সৌদি আরব যান এবং তিনি যদি ড্রাইভিং না পারেন তবে সে দ্বায় তো রিক্রুটিং এজেন্সির নয়।
তিনি জানান, যদি কখনো তারা এজেন্সির অন্যায় কোনো কাজের অভিযোগ পান তবে দূতাবাসের মাধ্যমে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।
বিভিন্ন কারণে গত কয়েক বছরে বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ কমিয়ে দিয়েছে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ। তবে বায়রার সাবেক সভাপতি গোলাম মোস্তফা বণিক বার্তাকে বলেন, বাংলাদেশের জনশক্তি রফতানিতে অন্যতম প্রধান বাজার হলো মধ্যপ্রাচ্য, বিশেষ করে সৌদি আরব। কিন্তু বিভিন্ন কারণে গত কয়েক বছরে সৌদি আরবে জনশক্তি রফতানি কমে গেছে। বর্তমানে একরকম বন্ধ বলা যায়। এর কারণ হিসেবে তিনি অভিবাসন ব্যয় বৃদ্ধি, মধ্যস্বত্বভোগী বিভিন্ন রিক্রুটিং এজেন্সির অনৈতিক বাণিজ্য এবং মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক অস্থিরতাকে উল্লেখ করেন।

তিনি শ্রমিকদেরও এ অবস্থার জন্য দায়ী করেন। তিনি জানান, ১৫-২০ বছর আগে যেসব শ্রমিক বিদেশে কাজের জন্য যেতেন তারা অনেক পরিশ্রমী ছিলেন। কিন্তু ৫-৬ বছর ধরে যেসব শ্রমিক বিদেশে যাচ্ছেন তারা কিছুটা অলস প্রকৃতির। বেশিরভাগ বিদেশগামী শ্রমিকই কম পরিশ্রমে টাকা আয় করার চেষ্টা করেন। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়ছেন বাংলাদেশী শ্রমিকরা। যার কারণে সৌদি আরবে বাংলাদেশী শ্রমিকের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়ে গেছে। এসব কারণে সৌদি সরকার বাংলাদেশী শ্রমিককে ভিসা দেয়া বন্ধ করে দিয়েছে বলে তিনি জানান।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশ থেকে এ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি জনশক্তি রফতানি হয়েছে সৌদি আরবে। ১৯৭৬ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত সৌদি আরবে মোট জনশক্তি রফতানি হয়েছে ২৫ লাখ ৮০ হাজার ১৯৮ জন। কিন্তু গত কয়েক বছরে সৌদি আরবে জনশক্তি রফতানি উল্লেখযোগ্য হারে কমে গেছে। ২০০৭ সালে সৌদি আরবে মোট জনশক্তি রফতানির পরিমাণ ছিল ২ লাখ ৪ হাজার ১১২ জন, ২০০৮ সালে এই সংখ্যা কমে হয়েছিল ১ লাখ ৩২ হাজার ১২৪ জন। এরপর থেকেই সৌদি আরবে জনশক্তি রফতানি উল্লেখযোগ্য হারে কমতে শুরু করে। ২০০৯ সালে সৌদি আরবে জনশক্তি রফতানি হয়েছিল ১৪ হাজার ৬৬৬ জন এবং ২০১০ সালে এসে এ সংখ্যা কমে দাঁড়ায় মাত্র ৭ হাজার ৬৯ জনে। সূত্রঃ বণিক বার্তা

Advertisements

তথ্য কণিকা Jahan Hassan জাহান হাসান
Ekush, Publisher/Editor/ Hollywood media hyphenate/ একুশ নিউজ মিডিয়া, লিটল বাংলাদেশ, লস এঞ্জেলেস / 1 818 266 7539 / FB: JahanHassan

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: