দেশে বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদিত ফুলের অধিকাংশই যশোর এলাকায় উৎপাদিত হয়ে থাকে : ফুল চাষে ব্যাংক ঋণ বাড়ছে

ফুল চাষে ব্যাংক ঋণ বাড়ছে

যুগান্তর রিপোর্ট
ফুল চাষে ব্যাংক ঋণ বাড়ছে। দেশের প্রধান ফুল উৎপাদনকারী অঞ্চল যশোর এলাকার ৮৫৮ জন ফুল চাষীকে এ বছর ৩ কোটি ৫৬ লাখ টাকা ঋণ দেবে ৩টি ব্যাংক। গত বছর এ এলাকার ফুল চাষে দুটি ব্যাংক ১ কোটি ৫১ লাখ টাকা ঋণ বিতরণ করেছিল।

যশোর এলাকার ফুল চাষের বিস্তৃতি দেখে মুগ্ধ হয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড· আতিউর রহমান। তিনি এসএমই ঋণ নীতিমালার আলোকে যশোরের ঝিকরগাছা, গদখালি, শার্শা ও নাভারণ এলাকার ফুল চাষীদের ঋণ দেয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। একই সঙ্গে ফুল সংরক্ষণের জন্য কোল্ড স্টোরেজ নির্মাণ এবং চাষ ও বাজারজাতকরণে অর্থায়ন করতে ব্যাংকগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। সম্প্রতি পূবালী ব্যাংকের নাভারণ শাখার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গভর্নর এ আহ্বান জানান।

জানা গেছে, এ এলাকায় ফুল চাষে তিনটি ব্যাংক বর্তমানে ঋণ দিচ্ছে। এগুলো হচ্ছে- স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ও পূবালী ব্যাংক। স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক এ বছর ১০০ চাষীকে ৫০ লাখ টাকা ঋণ দেবে। গত বছর ব্যাংকটি ৪০ চাষীকে ২৭ লাখ টাকা ঋণ দিয়েছিল। বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক এ বছর ৩২০ ফুল চাষীকে ১ কোটি টাকা ঋণ দেবে। গত বছর দেশের এ বিশেষায়িত ব্যাংকটি ৩৫৭ চাষীকে ১ কোটি ২৪ লাখ টাকা ঋণ দিয়েছে। পূবালী ব্যাংক এ বছর প্রাথমিকভাবে ৪১ ফুল চাষীকে ৫৫ লাখ টাকা ঋণ বিতরণ করছে।

বাংলাদেশ ফ্লাওয়ার সোসাইটির তথ্য মতে, দেশে বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদিত ফুলের অধিকাংশই যশোর এলাকায় উৎপাদিত হয়ে থাকে। যশোরের ফুল চাষীরা রজনীগন্ধা, গোলাপ, গাঁদা, গ্লাডিওলাস, জারবেরা ও লিলিয়ামের মতো দামি জাতের ফুল চাষ করেন। এ এলাকায় ৭ হাজার ৫০০ বিঘা জমিতে ফুলের চাষ হয়। এসব জমি থেকে অভ্যন্তরীণ বাজারে যে ফুল বিক্রি হয় তার আনুমানিক বাজারমূল্য প্রায় ১৫০ কোটি টাকা। বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদিত এসব ফুল রফতানি করা সম্্‌ভব হলে বিপুল পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করা সম্্‌ভব বলে মনে করেন সোসাইটির নেতারা। তারা বলছেন, এ অঞ্চলে ফুল চাষ দ্রুত বিস্তার লাভ করলেও চাষীদের তেমন কোন প্রশিক্ষণ নেই। বর্তমানে ফুল চাষীদের দরকার প্রশিক্ষণ ও ব্যাংকগুলো থেকে সহজ শর্তে ঋণ। এর পাশাপাশি ফুল বাজারজাতকরণের জন্য নির্দিষ্ট পাইকারি বাজার, সংরক্ষণের জন্য কোল্ড স্টোরেজ এবং পরিবহনের জন্য শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ফ্রিজার ভ্যান খুবই দরকার। উল্লেখ্য, প্রতিবেশী ভারত ও চীন ফুল রফতানি করে ব্যাপক পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করছে।
জাহান হাসান একুশ অর্থ বাণিজ্য bangla desh Share Market

Advertisements

তথ্য কণিকা Jahan Hassan জাহান হাসান
Ekush, Publisher/Editor/ Hollywood media hyphenate/ একুশ নিউজ মিডিয়া, লিটল বাংলাদেশ, লস এঞ্জেলেস / 1 818 266 7539 / FB: JahanHassan

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s