চলচ্চিত্র শিল্পকে পুঁজিবাজারে আনার পরিকল্পনা – এ এইচ রানা

চলচ্চিত্র শিল্পকে পুঁজিবাজারে আনার পরিকল্পনা
এ এইচ রানাঃ বহির্বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলচ্চিত্র শিল্পকে পুঁজিবাজারের সঙ্গে সম্পৃক্ত করার কথা ভাবছে সরকার! চলচ্চিত্র শিল্পকে আরো শক্তিশালী করতে এবং আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে বহুমুখী পরিকল্পনার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পুঁজিবাজারে সম্পৃৃক্ত করা। ইতিমধ্যে চলচ্চিত্র অঙ্গনের প্রথিতযশা শিল্পীরা চলচ্চিত্র শিল্পকে পুঁজিবাজারের সঙ্গে সম্পৃক্ত করার জোরালো দাবিও জানিয়েছেন। সম্প্রতি ‘চলচ্চিত্রে পুঁজি বিনিয়োগ ও বিশ্ব প্রেড়্গাপটে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বিষয়টি আরো স্পষ্ট হয়ে ওঠে।

শিল্প মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, চলচ্চিত্র অঙ্গন থেকে মৌখিকভাবে এবং বিভিন্ন সভা-সেমিনারে দীর্ঘদিন যাবৎ এ দাবি জানিয়ে আসছিলেন সংশিস্নষ্টরা। একই সঙ্গে তারা এখন এফডিসির উন্নয়নে এবং ব্যয়বহুল

ছবি বানানোর জন্য পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করতে চান। তাদের এ দাবিকে শিল্প মন্ত্রণালয়ও সর্মêথন জানিয়ে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার কথা ভাবছে। ইতিমধ্যে একটি অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রীও পুঁজিবাজারের সঙ্গে সম্পৃক্ত করার বিষয়ে একমত পোষণ করেছেন। শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়-য়া রাষ্ট্রীয় সফরে দেশের বাইরে থাকায় এ ব্যাপারে তার বক্তব্য নেয়া সম্্‌ভব হয়নি। অন্যদিকে এ ব্যাপারে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রেসিডেন্ট শাকিল রিজভী একটি সেমিনারে চলচ্চিত্র শিল্পকে পুঁজিবাজারে সম্পৃক্ত করার দাবিকে সমর্থন জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আমরা এখনো অনেক পিছিয়ে রয়েছি। আমাদের দেশের ভালো প্রযোজকরা অর্থের অভাবে মানসম্পন্ন ছবি তৈরি করতে পারেন না। কিন্তু পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের ফিল্মের সঙ্গে পুঁজিবাজারের নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। বাংলাদেশে এ ধরনের কোনো উদ্যোগ কেউ গ্রহণ করেনি। তবে বিষয়টি উপলব্ধি করতে পেরে এখন তারা জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। একই প্রসঙ্গে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সাবেক প্রেসিডেন্ট ও বর্তমান পরিচালক রকিবুর রহমান এফডিসির উন্নয়নে অবশ্যই পুঁজিবাজারে সম্পৃক্ত করা উচিত উলেস্নখ করে বলেন, চলচ্চিত্র শিল্পকে পুঁজিবাজারের সঙ্গে সম্পৃক্ত করা হলে আধুনিক বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ছবি বানানো যাবে। এফডিসিতে অত্যাধুনিক ল্যাব নেই। পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহের মাধ্যমে এর উন্নয়ন করা যেতে পারে। এছাড়া সাধারণ মানুষের অংশীদারিত্ব থাকলে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বাড়বে। তিনি আরো বলেন, উন্নয়ন কর্মকা ৈত্বরান্বিত করার জন্য ব্যাংক ঋণের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে আনতে হবে। সে ড়্গেত্রে পুঁজিবাজার বড় ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে বলে তিনি মনে করেন। এদিকে বাজার সংশিস্নষ্টরা বলেন, চলচ্চিত্র শিল্পকে পুঁজিবাজারের সঙ্গে সম্পৃক্ত করা হলে একদিকে যেমন ভালো মানের ছবি বানানোর প্রতিযোগিতা শুরম্ন হবে, ঠিক তেমনি দায়বদ্ধতা বেড়ে যাওয়ার কারণে অশস্নীল ছবি তৈরির পথ রম্নদ্ধ হবে। অন্যদিকে প্রযোজকদের দাদনের মাধ্যমে আর টাকা নিতে হবে না। ফলে পুঁজিবাজারে ফিরে আসবে সুশৃঙ্খল পরিবেশ।

 

Advertisements

তথ্য কণিকা Jahan Hassan জাহান হাসান
Ekush, Publisher/Editor/ Hollywood media hyphenate/ একুশ নিউজ মিডিয়া, লিটল বাংলাদেশ, লস এঞ্জেলেস / 1 818 266 7539 / FB: JahanHassan

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: